বাচ্চা মেয়ের জন্যে প্রেম

সে তো প্রথমে জিজ্ঞেস করলো আমি জিন্‌স পরি কি না। বাচ্চা মেয়ে। ক্লাস এইটে পড়ে। এই কথা সে জিজ্ঞেস করলো মানে আমি দেখতে কেমন?

আমি নিজের রূপ বর্ণনা করলাম। বললাম, পরি তো।

সে এতে খুশি হইলো সম্ভবত। তার চারপাশে তখন পিতাদের মোটা মোটা কণ্ঠস্বর শোনা যাইতেছিল। তারাও কি খুশি হইলেন?

টা ডা শ্!

ক্লাস এইট ফোন রাইখা দিলো। পরে করবে নিশ্চয়ই। আমি জিন্‌সের প্যান্ট খুইলা আবার লুঙ্গি পরলাম। প্রত্যেকবার ফোন আসলেই এক হাতে ফোনের হাতল ধইরা নতুন কিনা জিন্‌সের প্যান্টটা পরি। দুনিয়া যে কত অদ্ভুত জায়গা! এইখানে বাচ্চা মেয়ে নিয়া কথা বলা বড়রা একদম পছন্দ করে না।

One comment

  1. […] প্যান্ট নিয়া আমি কবিতাও লিখছি অনেক আগে। সে প্রায় ১৯৯৪ সালের […]

Leave a Reply