ভাড়া বাড়ি

ওই বাসায় থাকাকালীন আমি মোট ৫টি গভীর প্রেম করেছিলাম। সে অনেক কথা, হায়! কে আজ কোথায়?

রাইসু বিষয়ক সতেরো

রাইসু ভাই ছাড়া বাকিদের ক্ষেত্রে আমার পর্যবেক্ষণ হল তারা মূলত বিভিন্ন সোর্স থেকে নানা জিনিস সংগ্রহ কইরা রিসাইকেল করে সেটা পোস্ট বা পাবলিশ করে থাকেন।

বরিশাল

ঘাসের দায়িত্ব আছে সবুজ বিহনে কেবা ঘাস কারা তাকায় জানলাপথে ভক্তিভরে তাই মাঠে জন্ম লয় ঘাস প্রথমে হলুদ নাকি, সবুজও তো মারা গেল খয়েরি শালিখ তার অক্টোবর দুই-এ, সাল দু হাজার দুই শ সাতাশ যেন মৃত্যু পদত্যাগ ঘাসের সবুজে শালিখের…

ব্রাত্য রাইসু কী জিনিস?

রাইসু ত তার বুদ্ধিজীবিতা নিয়া সবার পক্ষে আছেন আবার কারো পক্ষে নাই থাকার মইধ্যে থাকতেছেন। ওরা ভাবে এইটা সুবিধাবাদী পজিশন।

সেইসব রাইসু

এরও আগে মনে পড়ে রাইসু অস্ট্রেলিয়া থাকতে (২০০৩-৪) অনলাইন ইয়াহু গ্রুপের মাধ্যমে ‘কবিসভা’র প্রবর্তন করে। পরে বাংলাদেশে ফিরার পরেও তাহা চলিতে থাকে।

মেল চক্করে রাইসু

তারপর অনেক অনেক কাল আমাদের দেখা নাই, ২০০৫ থিকা আমি দেশছাড়া, তারপর ২০১১ কি ২০১২ তে আমি দেশে গেছি, তখন ফেব্রুয়ারিতে বাংলা একাডেমিতে বইমেলা চলতাছে...

চেনা, আধ-চেনা অথবা না-চেনা ব্রাত্য রাইসু

উনি যখন লাগাতার এই বিষয় নিয়াই লেখতে থাকে তখন এক ধরনের অভ্যস্ততা কাজ করে। আস্তে আস্তে বার্তার মধ্যে ঢুকতে থাকি।